কলকাতা বিভাগে ফিরে যান

হোম কোয়ারেন্টিনে তৃণমূল মুখপাত্র, খোঁজ নিচ্ছেন অভিষেক

August 2, 2020 | < 1 min read

একুশে জুলাইয়ের আগে রাজ্য চষে বেরিয়েছেন। কোথাও স্ট্রিট কর্নার, কোথাও দলীয় কর্মীদের সঙ্গে বৈঠক আবার কোথাও প্রকাশ্য সভা। অন্যদিকে একইসঙ্গে চলেছে করোনার বিরুদ্ধে লড়াইও। হাসপাতালে ভর্তি করার প্রয়োজন কিংবা চিকিৎসাজনিত সাহায্য, কোনওরকম দ্বিধা-দ্বন্দ্ব না রেখেই সাহায্যার্থে এগিয়ে গিয়েছেন। সম্প্রতি তাঁকে দলের অফিসিয়াল মুখপাত্র হিসেবে গুরু দায়িত্ব দিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। একুশের বিধানসভা ভোটের আগে যে তরুণ সেনানী নেত্রী গড়েছেন, তাঁদের অন্যতম মুখ সুদীপ রাহা করোনায় আক্রান্ত।

জ্বর, সর্দি, কাশি কিংবা গলা ব্যথা, কোনও উপসর্গই ছিল না সুদীপের। তবে বিগত সময়ে একাধিক মানুষের সংস্পর্শে আসার কারণে তিনি সিদ্ধান্ত নেন করোনার পরীক্ষা করাবেন। শুক্রবার করোনা পরীক্ষার পর শনিবার রিপোর্ট আসতেই জানা যায় সুদীপ করোনা আক্রান্ত। ভেবেছিলেন হাসপাতালে যাবেন। তবে এই কঠিন সময় হাসপাতালের শয্যা ‘দখল’ করে রাখতে চাননি তিনি। সেকারণেই বাড়িতেই রয়েছেন। হোম কোয়ারেন্টিনে থেকেই চিকিৎসা চলছে তাঁর। সর্বক্ষণ খোঁজ নিচ্ছেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।

I have tested positive for Covid 19. As I am asymptomatic, I will in home quarantine for the next few days under medical supervision. Please do take care everyone.

Sudip Raha यांनी वर पोस्ट केले शनिवार, १ ऑगस्ट, २०२०

তাঁর কথায়, “কোনও রকম উপসর্গ ছিল না। তবে এতদিন অনেক মানুষের সংস্পর্শে আসার কারণেই করোনা পরীক্ষা করাই। শনিবার রিপোর্ট আসে। আমি পজিটিভ। ভেবেছিলাম হাসপাতালে যাব। দলের সবাই ফোন করে খোঁজ নিয়েছে। হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার কথাও বলেছে। তবে আমি কোনও রকম অসুস্থতা বোধ করছি না। হাসপাতালে বেড দখল করে রাখতে চাই না। পরে প্রয়োজন হলে নিশ্চয়ই যাব।”

সুদীপের ফেসবুক পোস্টেই তাঁর দ্রুত আরোগ্য কামনা করেছেন সতীর্থ, বন্ধু দেবাংশু ভট্টাচার্য। আরও এক ছাত্রযুব নেতা তৃণাঙ্কুর ভট্টাচার্য লিখেছেন, “ভয়ের কোনও কারণ নেই। রাজ্য সরকার এবং আমাদের চিকিৎসকরা তাঁদের সেরাটা দিচ্ছে। খুব শীঘ্রই দেখা হবে।” সুদীপ নিজে জানিয়েছেন, “অভিষেক দা” ২৪ ঘণ্টা তাঁর খবরাখবর নিচ্ছেন।

TwitterFacebookWhatsAppEmailShare

#covid-19, #tmc, #home quarantine, #Sudip Raha

আরো দেখুন