রাজ্য বিভাগে ফিরে যান

শ্রাবন্তী দল ছাড়তেই বেলাগাম তথাগত, কৈলাস বিজয়বর্গীয়কে নিশানা

November 11, 2021 | 3 min read

তিনি শুধু বিরোধীদের সমালোচনা করেন না। নিজের দলেরও তীব্র সমালোচনা করেন। বিতর্কেও জড়ান। একুশের নির্বাচনে বাংলায় দলের ভরাডুবির পর থেকে শীর্ষ নেতৃত্বের বিরুদ্ধে খড়গহস্ত বিজেপি নেতা তথাগত রায়। এবার অভিনেত্রী শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায় ট্যুইট করে দল ছাড়তেই ফের একবার স্বমহিমায় দেখা গেল তথাগতবাবুকে। সোশ্যাল মিডিয়ায় বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতা কৈলাস বিজয় বর্গীয়কে কুৎসিত ভাষায় আক্রমণ করেন তিনি।

এদিন ফেসবুকে একটি পোস্ট করেছিলেন তথাগত রায়। তাতে বিজেপি নেতা লেখেন,” তৃণমূলের এক অগ্রগণ্য ল্যাম্পপোস্ট বলেছেন,“এ রাজ্যে বিজেপি কোনো প্রতিপক্ষই নয়”। কেন এমন অবস্থা হল তা নিয়ে বিশ্লেষণ, কিন্তু তার চেয়েও গুরুত্বপূর্ণ, এই অবস্থা থেকে উত্তরণের জন্য একটি দুদিনের চিন্তন বৈঠক দরকার।এটি বিজেপির পরম্পরারই অন্তর্গত।গতানুগতিক মিটিং-মিছিল-বনধ করলে হবে না|” এই ট্যুইটে এক ব্যক্তি কমেন্ট সেকশনে শ্রাবন্তী ও কৈলাসের একটি ছবি পোস্ট করেন। তাতে ওই ব্যক্তি লেখেন, ‘শ্রাবন্তী কী বলল গুরুত্বপূর্ণ নয়, কৈলাস বিজয়বর্গীয়র হাসিটা লক্ষণীয় …’, সেই ছবি ও লেখাই ফের সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করেন তথাগত রায়।

এবার সোশ্যাল মিডিয়ায় বিজেপির বর্ষীয়াণ নেতা লেখেন, “আমাদের এক পুরোনো কর্মী দিনদুয়েক আগে লিখেছিলেন, উনি জয়নগরে সভা পরিচালনা করছিলেন। কৈলাশ বিজয়বর্গীয় শ্রাবন্তী সম্বন্ধে বলছিলেন, ওর মুখ দিয়ে প্রায় লালা ঝরছিল। এই সব নেতার হাতে বিজেপির প্রার্থী চয়নের ভার ছিল। এর পরে পশ্চিমবঙ্গে বিজেপির যে এই অবস্থা হবে এ আর বিচিত্র কি ?”

প্রবীণ নেতার এই ট্যুইটের পরই দলের অন্দরে শোরগোল পড়ে গিয়েছে৷ তথাগতর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি উঠেছে৷ তবে এই প্রথম নয়। বিভিন্ন সময়ে ট্যইটবাণে বিদ্ধ করেছেন দিলীপ ঘোষ, কৈলাস বিজয়বর্গীয়, অরবিন্দ মেনন এবং শিবপ্রকাশকে। ভোটে বাংলার দায়িত্বে যাঁরা ছিলেন তাঁদের ব্যর্থতার জন্য দল ডুবেছে বলে সরব তিনি। সম্প্রতি কৈলাস বিজয়বর্গীয়কে কুকুরের সঙ্গে তুলনা করেছিলেন তথাগত রায়। পাশাপাশি একটি পাগ প্রজাতির কুকুর এবং কৈলাসের মুখ দিয়ে মিম তিনি শেয়ার করেন ট্যুইটারে। সেই মিমের ক্যাপশনে লেখা ছিল, ভোডাফোন আবার পশ্চিমবঙ্গে। উল্লেখ্য, টেলিকম সংস্থা ভোডাফোন পাগ কুকুরকে বিজ্ঞাপনে বেশ কয়েক বছর আগে ব্যবহার করেছিল নেটওয়ার্কের শক্তি বোঝানোর জন্য। এবার সেই পাগের সঙ্গে কৈলাসের তুলনা করেন তথাগত।

চলতি নভেম্বরেও তিনি কৈলাস বিজয়বর্গীয়কে আক্রমণ করেন। তাঁর সঙ্গে নাম উল্লেখ করেন অভিনেত্রী শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায়। কোনও এক পুরোনো বিজেপি কর্মীর মন্তব্যকে টুইটারে পোস্ট করেছেন তথাগতবাবু। লিখেছেন, ‘বিজেপির এক বহু পুরোনো কর্মী স্বপন দাশের মন্তব্য: “নির্বাচনের ঠিক আগে জয়নগরে সভা পরিচালনা করছিলাম, আগেরদিন অভিনেত্রী শ্রাবন্তী বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন, কৈলাশজী তার ভাষনে শুধু শ্রাবন্তীর নাম….শুধু শ্রাবন্তী বন্দনায় মগ্ন ছিলেন যেন লালা ঝরছে। লজ্জা করছিল আমার,এরা আমাদের নেতা”?’

এদিকে শ্রাবন্তী দল ছাড়তেই এদিন কড়া প্রতিক্রিয়া দিয়েছেন অনুপম হাজরাও। বিজেপি নেতা লেখেন, লিখেছেন, “শ্রাবন্তীর মতো নেত্রী বিজেপি ছেড়ে চলে যাওয়ায় সংগঠনের যে ভয়ানক ক্ষতি হয়ে গেল, তা হয়তো ভবিষ্যতে কোনওদিনই পূরণ হবে না।” শ্রাবন্তীর বিজেপি ছাড়া নিয়ে মশকরাই করেছেন অনুপম। তিনি টুইটে বোঝাতে চেয়েছেন, শ্রাবন্তী কোনওদিনই সংগঠক ছিলেন না। ভোটপাখি হিসাবে দলে যোগ দিয়েছিলেন। তাই এখন দল ছেড়ে দিলে বিজেপির কোনও ক্ষতি হবে না।

প্রসঙ্গত এক সময় তৃণমূল ঘনিষ্ঠ ছিলেন শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায় । তবে একুশের ভোটের আগেই গত পয়লা মার্চ গেরুয়া শিবিরে যোগ দেন তিনি। বেহালা পশ্চিম কেন্দ্রের প্রার্থীও হন। বিপক্ষে ছিলেন পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের মতো হেভিওয়েট তৃণমূল নেতা। বিজেপির এই প্রার্থী নির্বাচন নিয়ে অসন্তুষ্ট ছিলেন অনেকেই। তাঁদের মধ্যে একজন ছিলেন তথাগত রায়। যদিও তাতে গুরুত্ব দেয়নি দল। শ্রাবন্তীর প্রচারে এসেছিলেন খোদ অমিত শাহ। কিন্তু তাতেও লাভ হয়নি। বিধানসভা নির্বাচনে পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের কাছে বিপুল ভোটে পরাজিত হন শ্রাবন্তী। তারপর থেকে আর বিজেপির কোনও কর্মসূচিতে দেখা যায়নি অভিনেত্রীকে। এদিন শ্রাবন্তী দল ছাড়তেই অভিনেত্রীকে ট্যাগ করে ট্যুইটে মদন মিত্র লেখেন ‘ওহ লাভলি’।

এদিকে শ্রাবন্তী কি এবার তৃণমূলে যাচ্ছেন? এই প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। প্রসঙ্গত কয়েকদিন আগে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ডাকা বিজয়া সম্মেলনিতে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল শ্রাবন্তীকে। কিন্তু তিনি যাননি। বিজেপি রয়েছেন বলেই তিনি নাকি যাননি। এমনটাই শোনা যায়। তবে এই অনুষ্ঠানে আরও বেশ কয়েকজন বিজেপি নেত্রীকে দেখা গিয়েছিল। তবে এবার অভিনেত্রী বিজেপি ছাড়তেই জল্পনা ছড়িয়েছে তার তৃণমূলে গমন নিয়ে।

TwitterFacebookWhatsAppEmailShare

#Mamata Banerjee, #bjp, #tathagata roy, #Kailash Vijabargiya, #Anupam Hazra, #Madan Mitra

আরো দেখুন