বিবিধ বিভাগে ফিরে যান

শুক্রাণু বেচে সংসার চালাচ্ছেন বহু তরুণ

August 8, 2020 | 2 min read

বিশ্বজুড়ে অতিমারির দাপটে ধুঁকছে অর্থনৈতিক পরিকাঠামো। চাকরি হারিয়েছেন বহু মানুষ। রোজগার কমেছে। এই মারণ ভাইরাসের প্রকোপে যে অর্থনৈতিক মন্দা বেশ সূদূরপ্রসারী হতে চলেছে, তা বোধহয় আর আলাদা করে বলার অপেক্ষা রাখে না। পথে বসার জোগাড় নিম্নবিত্তদের। মধ্যবিত্তরাও হালে পাণি পেতে মরিয়া। সংসারের খরচাটুকু চালাতে নাভিশ্বাস উঠেছে অনেকেরই। কর্মসংস্থানে সংকট, ফাঁকা পকেট। এমতাবস্থায় শুক্রাণুই হয়ে উঠেছে আয়ের একমাত্র উৎস। ইজরায়েলে রকেট গতিতে বাড়ছে শুক্রাণু বিক্রীর হার। সম্প্রতি, এক সমীক্ষাই এই তথ্য দাবী করেছে।

মধ্যপ্রাচ্যের সেই দেশের শত শত তরুণ শুক্রাণু বিক্রী করেই পেটের ভাত জোগাড় করছে। সম্প্রতি আন্তর্জাতিক এক সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত প্রতিবেদন অনুযায়ী, ইজরায়েলের সরকারি হাসপাতালগুলি বলছে, অন্যান্য সময়ের তুলনায় অতিমারির সময়ে শুক্রাণু বিক্রীর হার একশ থেকে তিনশ শতাংশ পর্যন্ত বেড়েছে। অন্যদিকে, বেসরকারি হাসপাতালগুলোতে সেই পরিসংখ্যান বেড়েছে ১৫ থেকে ৩০ শতাংশ। একজন ডোনার প্রতি মাসে স্পার্ম বিক্রী করে কয়েক হাজার আয় করতে পারেন।

উল্লেখ্য, এই শুক্রাণু দাতাদের অধিকাংশই কিন্তু শিক্ষার্থী এবং সামরিক বাহিনীর সদস্য। করোনার কারণে হয় যাদের চাকরি চলে গিয়েছে কিংবা বিনা পারিশ্রমিকে ছুটিতে রয়েছেন তাঁরা। সেই সমীক্ষা অনুযায়ী, করোনার জেরে ইজরায়েলে বেকারত্বের হার বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২১.১ শতাংশ। 

উপরন্তু করোনা সংক্রমণ এড়াতে বাড়তে থাকা বিধিনিষেধের জেরে অর্থনীতিতেও জোর ধাক্কা পড়ছে। দ্রুত সেই সঙ্কট থেকে বেরিয়ে আসতে চেষ্টা করছেন সংশ্লিষ্ট দেশের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু। কিন্তু, বেকারত্বের জ্বালা সে দেশে এমন পর্যায়ে পৌঁছেছে যে, দু’বেলার ভাত জোগাড় করতে পুরুষদের নিজেদের শুক্রাণু বেচতে হচ্ছে।

একবার শুক্রাণু দিলে দেড় হাজার ইজরায়েলি মুদ্রা পর্যন্ত আয় করা যায় ইজরায়েলের সরকারি এবং বেসরকারি স্পার্ম ব্যাংকগুলো থেকে। আরে সেই সুযোগই লুফে নিচ্ছে সে দেশের তরুণরা। 

“বিনা পরিশ্রমে মাত্র কয়েক মিনিটেই হাজার হাজার টাকা আয়।” পেটে খিদে নিয়ে এমন বিজ্ঞাপন নজরে আসতেই, স্পার্ম ডোনার হওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলছেন তাঁরা। বিগত কয়েক সপ্তাহে শুক্রাণু বিক্রীর এই হার ৩০০ শতাংশ পর্যন্ত বেড়েছে বলেও দাবী করা হয় সংশ্লিষ্ট সমীক্ষায়।

TwitterFacebookWhatsAppEmailShare

#sperms, #younger generation

আরো দেখুন