রাজ্য বিভাগে ফিরে যান

BJP’র কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের একাটাই প্রশ্ন ‘দিলীপ ঘোষ কব বকবাস করনা বনধ্ করেঙ্গে?’

May 18, 2023 | 2 min read

নিউজ ডেস্ক, দৃষ্টিভঙ্গি: বেফাঁস মন্তব্যের জন্য বিভিন্ন সময় দিলীপ ঘোষ সংবাদের শিরোনামে এসেছেন। যা নিয়ে অস্বস্তিতে পড়তে হয়েছে বিজেপিকেও। দলের অন্দরে দিলীপের কুকথা নিয়ে সরব হয়েছেন অনেকে। অতি সম্প্রতি কুড়মি নেতাদের উদ্দেশ্যে প্রাক্তন বিজেপি রাজ্য সভাপতি ও বর্তমান সাংসদ দিলীপ বলেন, ‘‘ওরা বেশি বাড়াবাড়ি করলে সব ক’টা নেতার কাপড় খুলে দেব। দিলীপ ঘোষের পিছনে যেন লাগতে না আসে।’’ এই বক্তব্যেই কুড়মিরা ক্ষোভে ফেটে পড়ে। বুধাবার কুড়মি সমাজের প্রতিনিধিরা দিলীপ ঘোষের খড়্গপুরের বাড়িতে এসে তুমুল বিক্ষোভ দেখায়।

কেন্দ্রীয় বিজেপির সহ-সভাপতি তথা সাংসদ দিলীপ ঘোষের সঙ্গে কুড়মি নেতাদের বিবাদ ক্রমশ বেড়েই চলেছে। যা নিয়ে যথেষ্ট বিব্রত বিজেপি। দেলের একাংশের মতে দিলীপের আলটপকা মন্তব্যের জেরে কুড়মি আন্দোলনের রাশ এখন তৃণমূলের হাতে চলে যাচ্ছে। অথচ কড়মি আন্দোলন রাজ্য সরকারকে যথেষ্ট বিব্রত করছিল। দিলীপের জন্যই পুরো রাজনৈতিক হিসেবটাই বদলে যাচ্ছে। উল্লেখ্য জঙ্গলমহলে অর্থাৎ বাঁকুড়া, পুরুলিয়া, ঝাড়গ্রাম, পশ্চিম মেদিনীপুরে কুড়মিদের ভাল প্রভাব রয়েছে। তারা যদি রাজ্য সরকার বা তৃণমূল কংগ্রেসের বিরুদ্ধে চলে যায় তাতে লাভ হওয়ার কথা বিজেপি’র। কিন্তু কুড়মিদের সঙ্গে দিলীপ ঘোষের ব্যক্তিগত সংঘাত এখন পরিস্থিতি অনেকটাই বদলে দিয়েছে।

দিলীপের বিরুদ্ধে ক্ষোভকে কাজে লাগিয়ে কুড়মিদের নিজেদের দিকে টানতে উদ্যোগী হয়েছেন তৃণমূলের সর্বোচ্চ নেত্রী তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বুধবারেই নবান্নে পূর্বাঞ্চলীয় কুড়মি সমাজের নেতাদের সঙ্গে দীর্ঘক্ষণ বৈঠক করেছেন তিনি। তাদের যাবতীয় দাবিদাওয়া খতিয়ে দেখার আশ্বাসও দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। সেখানেই ‘অশনি সঙ্কেত’ দেখছেন বিজেপি নেতৃত্বের একাংশ। তাঁদের আশঙ্কা, দিলীপের প্রতি ক্ষোভের জেরেই জঙ্গলমহলের কুড়মি সমাজের একটি বড় অংশ বিরূপ হতে পারে বিজেপির উপর। আসন্ন পঞ্চায়েত ভোট তো বটেই, সেই ক্ষোভের বহিঃপ্রকাশ ঘটতে পারে ২০২৪ সালের লোকসভা নির্বাচনেও।

বিজেপি সূত্রে খবর এ বার কুড়মি ক্ষোভ সামাল দিতে আসরে বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীকেই নামাতে চলেছেন দিলীপর উপর ক্ষুব্ধ কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব। অনেকে মনে করছেন, লোকসভা ভোটের আগে জঙ্গলমহলের কুড়মি সমাজের সমর্থন ফিরে পাওয়ার লক্ষ্যে এবার ‘দিলীপ বিরোধী’ বলে পরিচিত শুভেন্দুকেই দায়িত্ব তুলে দিচ্ছে কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব।

একসময় সিবিআই নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করায় বিজেপি শীর্ষ নেতাদের রোষের মুখে পড়তে হয়েছিল দিলীপ ঘোষকে। অভিযুক্ত তৃণমূল কংগ্রেস নেতাদের সঙ্গে সিবিআই আধিকারিকদের ‘সেটিং’ রয়েছে বলে কটাক্ষ করেছিলেন তিনি। শুধু তাই নয় বিজেপি’রই রাজ্য নেতৃত্বতে চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিয়ে বলেছিলেন, হিম্মত থাকলে কলকাতায় বিজেপিকে জিতিয়ে দেখান। এরপরই দলের সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডা কড়া বার্তা দিয়ে সতর্ক করে দিয়েছিলেন মেদিনীপুরের বিজেপি সাংসদকে।

২০২১-এ রাজ্যে হাইভোল্টেজ বিধানসভা ভোটে প্রচারে কদর্য ভাষয় তৃণমূল কংগ্রেস নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে আক্রমণ করেছিলেন। তিনি মমতাকে নিশানা করে বলেছিলেন, ‘প্রচারে গিয়ে একটি পা উপরে তুলে সকলে পা দেখাচ্ছেন মমতা। একটি পা খোলা আরেকটি পায়ের ব্যান্ডেজ বেঁধে ঘুরছেন। সেরকম হলে বারমুডা পরুন মুখ্যমন্ত্রী তাহলে দুটো পা পরিষ্কার দেখা যাবে।’ দিলীপের এই মন্তব্য গোটা নির্বাচনে বড় ইস্যু হয়ে দাঁড়িয়েছিল। যার ফল দলকে ভুঘতে হয়েছিল বলেই মনে করেন বিজেপি’র অনেকে। এবারও পঞ্চায়েত এবং লোকসভা নির্বাচনের আগে কুড়মিদের খেপিয়ে দিয়ে আদতে তৃণমূলকেই জঙ্গলমহলে সুবিধে করে দিচ্ছেন দিলীপ, এরকমটা মনে করতে শুরু করেছে বেজেপি নেতৃত্ব। তাই এবার ড্যামেজ কন্ট্রোলের জন্য দলে দিলীপ ঘোষের ‘পরম মিত্র’ বলে পরিচিত শুভেন্দু অধিকারীকেই ময়দানে নামাচ্ছে বিজেপি’র কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব।

TwitterFacebookWhatsAppEmailShare

#Central committee, #West Bengal, #bjp, #dilip ghosh

আরো দেখুন