পুজো স্পেশাল বিভাগে ফিরে যান

দক্ষিণ দিনাজপুরের শিববাড়ির এই মেলাকে ঘিরে রয়েছে বানরাজার ইতিহাস

July 28, 2023 | 2 min read

দক্ষিণ দিনাজপুরের শিববাড়ির এই মেলাকে ঘিরে রয়েছে বানরাজার ইতিহাস

নিউজ ডেস্ক, দৃষ্টিভঙ্গি: দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার মেলাগুলির মধ্যে শতাব্দী প্রাচীন বারুণী মেলা। পুর্নভবা নদীতে পুণ্যস্নান সেরে পুণ্যার্থীরা বিরুপাক্ষ বাণেশ্বর শিব মন্দির ও শিববাড়ি কালীমন্দিরে পুজো দেন।

বারুণী শব্দটির মধ্যে রয়েছে পৌরাণিক এক ইতিহাস। বারুণী হলেন হিন্দু পৌরাণিক দেবী৷ তিনি বরুণ দেবকে নিজের পতি হিসাবে গ্রহণ করেছিলেন৷ ঋক বেদে বরুণানী হলেন সুরার দেবী৷ পুরাণ অনুসারে দেবী বারুণীর চরিত্রের পেছনে দুটি কাহিনী হয়েছে৷ সমুদ্রমন্থনে সমস্ত প্রকার ভেষজসমূহ এবং চৌদ্দ প্রকার রত্ন উত্থিত হয়, যা দেবতাগণ এবং অসুরগণের মধ্যে ভাগাভাগি হয়ে যায়৷ সর্বাধিক উল্লেখপ্রাপ্ত রত্নগুলি শিব, বিষ্ণু, মহর্ষি, দেব এবং অসুরগণের মধ্যে ভাগাভাগি হয়৷

বিষপান করে দেব ও অসুর উভয়কে রক্ষা করার জন্য ভগবান শিব বিশেষ রত্নের অধিকারী হন৷ রত্ন ও ভেষজ ছাড়াও ৩ প্রকার দেবী এই সমুদ্র মন্থনের ফলে ক্ষীরসাগর থেকে উত্থিত হন৷ তারা হলেন, লক্ষ্মী, অপ্সরা, বারুণী। একপ্রকার জোর জবরদস্তি করেই অসুররা বারুণীকে নিজেদের ভাগে টেনে নেয়। অপিরচ্ছন্নতার সহিত তাঁর জন্ম হয় এবং তিনি ছিলেন তর্কবাগিনী৷ আবার অন্যমতে বারুণী বা বরুণানী ছিলেন বরুণদেবের স্ত্রী৷ সমুদ্রমন্থন পর্বে তাঁর উত্থানের ফলে অসুররা একপ্রকার জোড় করেই তাকে নিজ হস্তোগত করলেও অমৃৃতলাভ করে দেবতারা অজেয় হন৷ পরে অসুরকুল বিনাশ হলে বরুণ দেব বরুণানীকে বিবাহ করেন৷

এই বারুনী স্নান উপলক্ষ্যে দক্ষিন দিনাজপুর জেলা সহ রাজ্যের বহু পূণ্যার্থীদের ভিড় লেগে থাকে গঙ্গারামপুর শিববাড়ীর পুনর্ভবা নদীতীরে। এই মেলাকে ঘিরেই রয়েছে ঐতিহাসিক বানরাজার ইতিহাস।

মধুকৃষ্ণ ত্রয়োদশী তিথিতে শিববাড়িতে বারুণী স্নানের মেলাতে বহু দুরদুরান্ত থেকে পুণ্যার্থীরা এই মেলায় সামিল হয় এবং পূণর্ভবা নদীতে স্নান করেন। স্নান সারার পাশাপাশি দর্শনার্থীরা ঐতিহাসিক বাণরাজার শিব মন্দির বানেশ্বর সহ বহু দর্শনীয়স্থান পরিদর্শন করে।

এই মেলাকে কেন্দ্র করে প্রচুর মানুষের জনসমাগম হয়। মেলা প্রাঙ্গণে রকমারি জিনিসের পসরা সাজিয়ে বসেন ব্যবসায়ীরা। মেলায় নাগরদোলা সহ ছোটদের মনোরঞ্জনের সকল রকম আয়োজন করা হয়। আর থাকে জিলিপি সহ হরেক রকমের মিষ্টি ও মুখরোচক খাবারের দোকান। দর্শনার্থীরা পূণ্যার্জনের জন্য যেমন এই মেলায় অংশগ্রহণ করেন তেমন‌ই নিজেদের প্রাচীনতম মেলার আনন্দের শরিকও করে তোলেন।

TwitterFacebookWhatsAppEmailShare

#History, #shibbari, #daksh dinajpur, #baruni mela, #banorbazar, #West Bengal

আরো দেখুন