রাজ্য বিভাগে ফিরে যান

কাঁথি থেকে গ্রেপ্তার দক্ষিণ ভারতে বিস্ফোরণ কান্ডের সন্দেহভাজন! মেদিনীপুরের কোন পরিবারের দিকে আঙুল কুণালের?    

April 12, 2024 | 1 min read

অবশেষে ধরা পড়লো বেঙ্গালুরু ক্যাফে বিস্ফোরণ কাণ্ডে অভিযুক্তরা

নিউজ ডেস্ক, দৃষ্টিভঙ্গি: নিউজ ডেস্ক, দৃষ্টিভঙ্গি: অবশেষে ধরা পড়লো বেঙ্গালুরু ক্যাফে বিস্ফোরণ কাণ্ডে অভিযুক্তরা। বেঙ্গালুরুর রামেশ্বরম ক্যাফেতে আইইডি বিস্ফোরণে জড়িত দুই অভিযুক্তকে  রাজ্য পুলিশের সাহায্যে অবশেষে গ্রেপ্তার করল এনআইএ। জানা গিয়েছে, অভিযুক্ত দুই জন কাঁথিতে লুকিয়ে ছিল। আজ তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। 

বেঙ্গালুরু বিস্ফোরণকান্ডে গ্রেপ্তার প্রসঙ্গে কুণাল ঘোষ এক্স হ্যান্ডেলে দাবি করেন, কাঁথির কোন্ পরিবার দুষ্কৃতীদের নিয়ে আসে বা আশ্রয় দেয়। সে বিষয়ে সেই পরিবারের ভূমিকার তদন্ত করা হোক। রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের মতে,  কুণাল ফের রাজ্যের বিরোধী দলনেতার দিকেই  আঙুল তুললেন। তাঁর কথায়, “NIA কেও মানতে হল রাজ্য পুলিশের সক্রিয় সহযোগিতার কথা। বেঙ্গালুরু বিস্ফোরণে জড়িত বলে যে গ্রেপ্তার তারা করেছে, তাতে তাদের প্রেস রিলিজেও রাজ্য পুলিশের সহযোগিতার উল্লেখ। আর কোথা থেকে ধরেছে?কাঁথি। সবাই জানে সেখানে কোন্ পরিবার দুষ্কৃতীদের আনে, আশ্রয় দেয়। এসবে তাদের ভূমিকার তদন্ত হোক।”

বিরোধী দলের প্রতি তোপ দেগে তিনি আরও জানান যে, বেঙ্গালুরুর আইইডি বিস্ফোরণ কান্ডে গ্রেপ্তার হয়েছে  বিজেপি কর্মীও। তাছাড়াও কেন্দ্রীয়  এজেন্সির সাথে রাজ্য পুলিশের যে অসহযোগীতার অভিযোগ বিজেপি দীর্ঘদিন করে আসছে, তার জবাবও কুনাল ঘোষ দেন। তাঁর কথায়, “বাংলার পুলিশ দেশবিরোধী অশুভ শক্তিকে দমন করতে অবিচল এবং অন্য এজেন্সিকে সহযোগিতা করতেও প্রস্তুত, আবার প্রমাণিত।  তাছাড়া মনে রাখুন, এই মামলায় একজন বিজেপি কর্মীও গ্রেপ্তার হয়েছিল।” 

প্রসঙ্গত,  মার্চ মাসের ১ তারিখ বেঙ্গালুরুর রামেশ্বরম ক্যাফেতে যে আইইডি বিস্ফোরণে আহত হয়েছিলেন কমপক্ষে ১০ জন। ৩ মার্চ তদন্তভার গ্রহণ করে এনআইএ। এই হামলায় মূল অভিযুক্ত ছিল আব্দুল মাথিন ত্বহা ও মুসাভির হুসেন সাজিব।  অবশেষে আজ  রাজ্য পুলিশের সাহায্যে গ্রেপ্তার করে এনআইএ।

TwitterFacebookWhatsAppEmailShare

#bjp, #suvendu adhikari, #tmc, #Kunal Ghosh, #Kanthi, #Bengaluru Blast, #midnapore

আরো দেখুন