বাংলার রায় ২০২১
জীবনশৈলী বিভাগে ফিরে যান

বয়ফ্রেন্ড কি খবরদারি করে?

May 5, 2020 | 2 min read

পিয়ালি আর অঞ্জনের আজ প্রেমের এক বছর পূর্ণ হল। বিকেলে বেশ একটা কোজি ডিনার ডেট আছে তাঁদের। নতুন কেনা শর্ট ড্রেসের সঙ্গে স্টিলেটো ম্যাচ করে সেজেগুজে নিজেকে আয়নার দেখতে গিয়েই চিন্তার ভাঁজ পড়ল পিয়ালির কপালে। এমন একটা সুন্দর দিন, কিন্তু একটু চিন্তা নিয়েই রেস্তোরাঁয়া পৌঁছল সে। গিয়ে দেখে অঞ্জন আগে থেকেই সেখানে দাঁড়িয়ে। পিয়ালিকে দেখেই ভুরু কুঁচকে এগিয়ে এল অঞ্জন। এত ছোট ড্রেস কেন পরেছে, সেই নিয়ে শুরু হল তার প্রশ্নবাণ।

শুধু তাই নয়, তখনই ডিনার ক্যানসেল করে ফিরে গেল সে। গত এক বছর ধরেই এই ধরনের পরিস্থিতির মধ্যে বারবার পড়তে হচ্ছে পিয়ালিকে। অন্য সব কিছু ভালো হওয়া সত্ত্বেও অঞ্জন যে ভাবে সব বিষয়ে তার মতামতটাই চাপিয়ে দেয়, তা আর সহ্য করতে পারছে না।

বয়ফ্রেন্ড কি খবরদারি করে?

পিয়ালির মতোই পরিস্থিতি অনেকেরই। আপনার বয়ফ্রেন্ডও যদি এতটাই খবরদারি করে, তাহলে সিদ্ধান্ত নেওয়ার সময় এসেছে। 

বয়ফ্রেন্ড ডমিনেটিং কিনা, তা চিনে এই তিন উপায়েঃ-

খবরদারি করা স্বভাব হলে বয়ফ্রেন্ড কিছুতেই কোনও পার্সোনাল স্পেস দিতে রাজি হবে না। গার্লফ্রেন্ডের ব্যক্তিগত জীবনে নাক গলানোই তার স্বভাব। এমনকি বান্ধবীর মোবাইল ফোনও ঘেঁটে দেখে সে। অনেকেই মনে করে দুজন মানুষের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক থাকলে সেখানে পার্সোনাল স্পেসের প্রয়োজন নেই। কিন্তু এটা একেবারেই ভুল ধারণা।

ডমিনেটিং বয়ফ্রেন্ড খুব ডিমান্ডিং-ও হয়। সে অত্যন্ত অ্যাটেনশন সিকার হয়। বান্ধবীকে সব সময় তার সঙ্গে কথা বলতে হবে, তার কথা শুনে চলতে হবে। এর অন্যথা হলেই সে সিন ক্রিয়েট করা শুরু করে।

খবরদারি করা যার স্বভাব, সে সব সিদ্ধান্ত একাই নিতে পছন্দ করে। এমনকি দুজনের সঙ্গেই জড়িত যে বিষয়, তাতেই বান্ধবীর মতামতে গুরুত্ব দেওয়ার প্রয়োজন বোধ করে না। এমনকি গার্লফ্রেন্ডের জীবনের সিদ্ধান্তও সেই নিতে চায়।

TwitterFacebookWhatsAppEmailShare

#love, #Boyfriend, #Girlfriend

আরো দেখুন