তথ্য যাচাই বিভাগে ফিরে যান

ভুয়ো ছবি টুইট সুজনের, পাল্টা টুইটে তোপ ঋতব্রতর

September 5, 2020 | 2 min read

মাইক্রোসফটের এক রিপোর্ট অনুযায়ী, ভারতের ৬৪% মানুষ ভুয়ো খবরের শিকার। এমনকী গোটা বিশ্বের মধ্যে এদেশেই সবচেয়ে বেশি ভুয়ো খবর ছড়ানো হয়। ভারতে ভুয়ো খবরের রমরমা নিয়ে অভিযোগ নতুন নয়। এই নিয়ে দেশ তথা রাজ্যের রাজনীতিও উত্তপ্ত হয়ে থাকে। এবার একই ইস্যুতে সোশ্যাল মিডিয়ায় CPI(M)-কে একহাত নিলেন প্রাক্তন সাংসদ তথা তৃণমূল নেতা ঋতব্রত বন্দ্যোপাধ্যায়। তাঁর নিশানায় বাম পরিষদীয় নেতা ড. সুজন চক্রবর্তী। CPI(M) বিধায়কের একটি টুইটকে হাতিয়ার করেই বাম নেতাদের বিরুদ্ধে তোপ দেগেছেন ঋতব্রত।

অতিবৃষ্টিতে বেহাল এক রাস্তার একটি ছবি সম্প্রতি টুইট করেন সুজন চক্রবর্তী। ছবিতে রাস্তা জুড়ে তৈরি হওয়া ছোট-বড় গর্ত দেখা যাচ্ছে। তাতে বৃষ্টির জল ভরে গিয়েছে। ওই গর্তই অনেকটা ভারতের মানচিত্রের মতো দেখতে লাগছে। সেই ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করে সুজন চক্রবর্তীর অভিযোগ, ‘সব ক্ষেত্রেই বাংলার অবস্থা করুণ। জরাজীর্ণ রাস্তার অবস্থা।’ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের টুইটার অ্যাকাউন্টকে ট্যাগ করে বাম নেতার প্রশ্ন, ‘ভারতের মানচিত্রের আদলে রাস্তার গর্তই তার সাক্ষী! তাই নয় কি?’

সুজন চক্রবর্তীর এই টুইটকেই হাতিয়ার করে পালটা তোপ দেগেছেন তৃণমূল নেতা ঋতব্রত বন্দ্যোপাধ্যায়। টুইট-নিশানায় তিনি বলেন, ‘লোকসভা নির্বাচনের আগে বাংলার CPM কর্মীরা যে BJP-র সঙ্গে হাত মিলিয়েছিল, তা অজানা নয়। তবে আপনিও BJP নেতাদের মতো অসত্য খবর এবং ভুয়ো তথ্য ছড়াবেন, এটা আশা করিনি। অত্যন্ত আশাহত।’ সুজন চক্রবর্তীর টুইট যে ভুয়ো তা প্রমাণে শিল্পপতি আনন্দ মহিন্দ্রার একটি টুইট শেয়ার করেছেন ঋতব্রত। দু’বছর পুরনো ওই টুইটে একই ছবি পোস্ট করেছিলেন মহিন্দ্রা গ্রুপের চেয়ারম্যান। সেই টুইট থেকেই ছবিটি যে মহারাষ্ট্রের ঠানে জেলার ভিওয়ান্ডি শহরের, তা জানা যাচ্ছে।

এছাড়াও ছবিটি গুগল রিভার্স ইমেজ সার্চের মাধ্যমে খুঁজে দেখলে ২০১৮ সালের Indiatimes এর একটি নিউজ রিপোর্ট পাওয়া যাবে। যেখানে ছবির উৎস সম্পর্কে তথ্য দেওয়া হয়েছে। এছাড়াও শিল্পপতি আনন্দ মহিন্দ্রার টুইটেও সেই উল্লেখ রয়েছে। নীচে সেই টুইট-

এই বিষয়ে প্রাক্তন রাজ্যসভার সাংসদ ঋতব্রত বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ‘বামেদের এই অবস্থা হবে আশা করিনি।’ উত্তরবঙ্গের আলিপুরদুয়ার থেকে ফোনে তৃণমূল নেতা জানান, BJP-র থেকে তথ্য নিয়ে ‘প্রচার’ করছে CPM। তাঁর কথায়, ‘BJP থেকে বলা হয়েছে বলে টুইট কিনা জানি না তবে ওঁর (পড়ুন, সুজন চক্রবর্তী) মতো তাত্ত্বিক নেতার উচিত, খোঁজ-খবর নিয়েই টুইট করা।’

প্রসঙ্গত, এর আগেও টুইটে সুজন চক্রবর্তীকে নিশানা করেছেন ঋতব্রত বন্দ্যোপাধ্যায়। লকডাউনের সময় শাসকদলের নেতাদের বিরুদ্ধে তোলাবাজির অভিযোগ এনে টুইট করেছিলেন বাম পরিষদীয় নেতা। যার সমালোচনা করে ‘সংকটের সময়ে রাজনীতি’র অভিযোগ করেছিলেন ঋতব্রত বন্দ্যোপাধ্যায়।

TwitterFacebookWhatsAppEmailShare

#Sujan Chakraborty, #Mamata Banerjee, #RITABRATA BANERJEE

আরো দেখুন